অধিনায়ক পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন ধোনি

অধিনায়ক পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন ধোনি

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন

পঁচিশ মাস আগে হঠাৎ করে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার পর ভারতের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক এমএস ধোনি এবার ওয়ানডে ও টি-২০ ফরম্যাটের অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন। ক্রিকেট বিশ্বকে অবাক করে বুধবার পদত্যাগের ঘোষণা দেন ভারতকে দুটি বিশ্বকাপ শিরোপা এনে দেয়া এই মাস্টার ক্রিকেটার। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের মাত্র ১১ দিন আগে এই ঘোষণা আসলো। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড [ বোর্ড অফ ক্রিকেট কন্ট্রোল ফর ইন্ডিয়া] জানয়েছে, উইকেটরক্ষক-কাম- ব্যাটসম্যান ধোনি ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আসন্ন সিরিজে খেলার জন্য তৈরি, তবে তার বদলে কে অধিনায়ক হবেন তা এখনো ঠিক হয়নি।

সীমিত ওভারের ক্যারিয়ারে ধোনি এ পর্যন্ত ২৮৩ ম্যাচে ৫০.৮৯ গড়ে ৯১১০ রান করেছেন। যার মধ্যে ১৮৩ (নট আউট) ছিল সর্বোচ্চ। এছাড়া ৭৩ আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচে থেকে ১১১২ রান করেছেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। সীমিত ওভারের দলের দায়িত্ব পালনকালে ধোনির প্রথম সফলতা ছিল ২০০৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত প্রথম টি-২০ বিশ্বকাপে ভারতকে শিরোপা এনে দেয়া। তার শ্রেষ্ঠ সময় আসে চার বছর পর, যখন ধোনির নেতৃত্বে ভারত নিজ মাটিতে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ওয়ানডে বিশ্বকাপ জয় করে। তবে গত বছর টি-২০ বিশ্বকাপে ফেভারিট হওয়া সত্ত্বেও সেমিফাইনালে হেরে ভারত টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিলে তার অবস্থান সমালোচনার মুখে পড়ে যখন ।

ভারতের সুপ্রিম কোর্ট ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি ও সচিব অনুরাগ ঠাকুর ও অজয় শিরকেকে সরে দাঁড়ানোর নির্দেশ দেয়ার একদিন পর ধোনি তার অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানালেন।

ধোনির আকস্মিক পদত্যাগের ব্যাপারে মন্তব্য করতে গিয়ে বোর্ড’র নির্বাহী কর্মকর্তা রাহুল জোহরি বলেন, “প্রত্যেক ভারতীয় ক্রিকেট ফ্যান এবং বিসিসিআই’র পক্ষ থেকে আমি ধোনিকে ধন্যবাদ জানাই সব ফরম্যাটে ভারতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে তার বিশেষ অবদানের জন্য”

২০১১ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপ জয়ী ‘টিম ধোনি’র গুরুত্বপূর্ণ অংশ ব্যাটিং লিজেন্ড শচীন টেন্ডুলকার

মন্তব্য করেন যে এটি সফল অধিনায়কত্ব উদযাপনের দিন। টেন্ডুলকার টুইটারে বলেন, “টি-২০ এবং ওয়ানডে বিশ্বকাপে সফল অধিনায়ক হিসেবে একটি বিস্ময়কর ক্যারিয়ারের জন্য এমএসডিকে অভিনন্দন”

এর আগে ২০১৪ সালে, অস্ট্রেলিয়া সফরকালে হঠাৎ করেই টেস্ট ক্রিকেটের অধিনায়কত্ব ছাড়ার ঘোষণা দেন ৩৫ বছর বয়সী ধোনি। তবে তিনি ২০১৯ সালের বিশ্বকাপ পর্যন্ত ক্যারিয়ার অব্যাহত করবেন কিনা ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত পরবর্তী চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পারফর্মেন্সে তা বোঝা যাবে।

 

 

 

print
শেয়ার করুন