শ্রীলংকায় ধর্মীয় শান্তিভঙ্গকারীদের প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি

শ্রীলংকায় ধর্মীয় শান্তিভঙ্গকারীদের প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন
ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টি (ইউএনপি)’র চেয়ারম্যান মালিক সামারাবিক্রমা

শ্রীলংকায় ধর্মীয় উত্তেজনা সৃষ্টি করে কোন ব্যক্তি বা সংগঠন পার পাবে না বলে সতর্ক করে দিয়েছেন ক্ষমতাসীন ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টি (ইউএনপি)’র চেয়ারম্যান মালিক সামারাবিক্রমা। তিনি বলেন, শ্রীলংকা আর অন্ধকার যুগে ফিরে যেতে চায় না। যুদ্ধের কারণে হাজার হাজার মানুষকে জীবন দিতে হয়েছে। অর্থনৈতিক স্থবিরতা ও আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া এখন অতীতের ঘটনা।

এক বিবৃতিতে সামারাবিক্রমা আরো বলেন, একটি মহল বর্তমান প্রেসিডেন্ট মৈত্রিপালা সিরিসেনা ও প্রধানমন্ত্রী রানিল বিক্রমসিঙ্ঘের নেতৃত্বাধিন জাতীয় ঐক্যের সরকারের পুনর্মিলন প্রচেষ্টা নস্যাৎ করার জন্য অন্তর্ঘাতমূলক তৎপরতা চালাচ্ছে।

তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে ইউএনপি একটি ধর্মনিরপেক্ষ রাজনৈতিক দল। এটি ঐক্যের ভিত্তিতে শ্রীলংকার একটি সত্যিকারের পরিচয় তৈরি করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

বিবৃতিতে সাম্প্রতিক ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বলা হয়, ধর্মীয় উত্তেজনা সৃষ্টি, সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষ ছড়ানো ও পুনর্মিলন প্রক্রিয়ায় বাধাদানের যেকোন প্রচেষ্টা পূর্ণশক্তিতে দমনের জন্য সম্প্রতি মন্ত্রিসভা প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীকে যে ক্ষমতা দিয়েছে ইউএনপি তাকে স্বাগত জানায়।

২০১৫ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ও ২০১৫ সালের আগস্টে পার্লামেন্ট নির্বাচনে জনগণ ইউএপি’র পুনর্মিলন প্রচেষ্টাকে ম্যান্ডেট দিয়েছে উল্লেখ করা হয়। তাই সাম্প্রদায়িক শান্তি, ধর্মীয় সম্প্রীতি ও আইনের শাসন রক্ষার ব্যাপারে কোনরকম ছাড় দেয়া হবে না বলে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে।

এতে বলা হয়, প্রত্যেক ধর্মের মূল কথা অহিংসা ও অন্যদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া। যারা ঘৃণা ছড়ায় ও সহিংসতা উষ্কে দেয় তারা শুধু ধর্মকেই খাটো করতে চায়। যারা বিদ্বেষমূলক অপরাধের সঙ্গে জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনতে ইউএপি প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানায়।

print
SOURCEডেইলি নিউজ
শেয়ার করুন