মিয়ানমারের সামরিক বিমানের ব্লাক বক্স উদ্ধার

মিয়ানমারের সামরিক বিমানের ব্লাক বক্স উদ্ধার

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন

মিয়ানমারে ৭ই জুন দুর্ঘটনার শিকার হওয়া সামরিক বিমানের পিছনের অংশ গত রোববার উদ্ধার হয়েছে এবং এখান থেকে ফ্লাইট ডাটা রেকর্ডার যা সাধারণত “ব্ল্যাক বক্স” নামে পরিচিত, ককপিট ভয়েস রেকর্ডার (সিভিআর) এবং একজনের মৃতদেহ পাওয়া গিয়েছে বলে ডিফেন্স সার্ভিসের কমান্ডার-ইন-চীফের অফিস থেকে একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, “বিমান দুর্ঘটনার কারণ জানানোর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে”। বিমানটির লেজের অংশে পাওয়া মৃতদেহসহ সর্বমোট ৯২টি লাশ পাওয়া গেল। নৌবাহিনীর জাহাজ, ডুবুরি এবং ট্রলাররা ব্ল্যাকবক্স উদ্ধারের জন্য এই এলাকার সমুদ্রপৃষ্ঠে চিরুনি অভিযান চালিয়েছে গত কয়েকদিন ধরে এবং শেষ পর্যন্ত বৃহস্পতিবার দেশের দক্ষিণ উপকূলে একটি স্থানীয় জাহাজ মাছ ধরার জালের মধ্যে বিমানের লেজটি আটকা পড়ে। পরবর্তীতে তা এয়ারব্যগের সাহায্যে উপরে উঠানো হয়। ৭ই জুন বিকেলে ইয়াঙ্গুন যাওয়ার জন্য মিয়ানমারের দক্ষিণাঞ্চলীয় মৈয়িক থেকে বিমানটি ক্রু, তাদের পরিবারের সদস্য এবং সামরিক বাহিনী সদস্যসহ ১২২ জনকে নিয়ে যাত্রা শুরু করে়।

স্থলে, আকাশে এবং সমুদ্রে সামরিক বাহিনী এবং মাছ ধরার নৌকাগুলিতে স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবীরা দুর্ঘটনার শিকার ও সম্ভাব্য জীবিতদের খোঁজে অব্যাহত রেখেছে। পানিতে প্রায় ৩৫ মিটার গভীরতায় মাছ ধরার জালে একটি অস্বাভাবিক বস্তু পাওয়া গেলে পরিদর্শনের নৌবাহিনীর জাহাজ থেকে দুই ডুবুরি প্রেরণ করা হয়। পরে বস্তুটি ওয়াই-৮ বিমানের লেজের অংশ বলে চিহ্নিত করা হয়। মৌসুমী ভারী বৃষ্টি এবং উত্তাল সমুদ্রের মাঝখানে এখনও বাকি মৃতদেহ এবং বিমানের পরিশিষ্ট পাবার জন্য সন্ধান চলছে।