খনিশ্রমিকরা পালিয়ে গেছে কাচিন রাজ্য থেকে

খনিশ্রমিকরা পালিয়ে গেছে কাচিন রাজ্য থেকে

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন

কাচিন মুক্তিবাহিনী (কেআইএ) এবং মিয়ানমার সামরিক বাহিনীর মধ্যকার সাম্প্রতিক যুদ্ধের কারণে কাচিন রাজ্যের তানাই টাউনশিপের আশপাশ এলাকার সাতটি খনি থেকে হাজার হাজার স্থানীয় লোক এবং শ্রমিক পালিয়ে গেছে।

গত ১৫ জুন থেকে নোই বাম পাটসার্ন মাও গ্রামের অম্বর খনির ছোট কুঁড়েঘরগুলোর প্রায় সবই পরিত্যক্ত রয়েছে। সামরিক বাহিনী তাদেরকে সরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়ে বলেছিল, এই আদেশ পালন না করা হলে তাদেরকে বিদ্রোহী হিসেবে চিহ্নিত করা হবে। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার থেকে ফেলা লিফলেটে এ কথা বলা হয়।

তবে কিছু লোক হুঁশিয়ারি উপেক্ষা করে এখনো খালি খনিগুলোতে কাজ করার আশায় রয়ে গেছে বলে কেআইএ খনি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। ১৫ জুন খনি এলাকা থেকে দুটি লাশ উদ্ধার করা হয়।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ওই দুই ব্যক্তি গোপনে অম্বর খনিতে প্রবেশ করতে চেয়েছিল। কিন্তু অক্সিজেনের অভাবে তারা মারা গেছে। খনিতে নানা কারণে প্রায়ই শ্রমিকরা মারা যায়।

কেআইএ খনি কর্মকর্তাদের ১৬ জুনের মধ্যে এলাকা ত্যাগ করার নির্দেশ দিয়েছে। তবে অনেকে কাছে ফেরার মতো অর্থ না থাকায় যেতে পারছে না। তাদের অনেকে জঙ্গলে লুকিয়ে রয়েছে।

গ্রামের রেস্তোরাঁ, বাজার, বার জুন মাসের শুরু থেকে বন্ধ রয়েছে।

কেআইএ অম্বর ও স্বর্ণের খনি থেকেই তাদের বেশিরভাগ অর্থ পেয়ে থাকে। এই অর্থ দিয়ে তারা মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে। জাতিগত সশস্ত্র গ্রুপটি কাচিন রাজ্যের হপকান্ত টাউনশিপের খনি এলাকাগুলো নিয়ন্ত্রণ করছে। তবে ইতোমধ্যেই মিয়ানমার সেনাবাহিনীর কাছে অনেক এলাকা তারা খুইয়েছে।
কেআইএ খনি কর্মকর্তারা বলছেন, তারা মনে করছেন, মিয়ানমার সেনাবাহিনীও অম্বর ও স্বর্ণ খনিগুলোর নিয়ন্ত্রণ করতে চাইছে।

SOURCEইরাবতী
শেয়ার করুন