উত্তেজনা কমাতে কাবুলে সফর করবেন পাকিস্তানের সারতাজ আজিজ

উত্তেজনা কমাতে কাবুলে সফর করবেন পাকিস্তানের সারতাজ আজিজ

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন

আফগানিস্তানের সরকার বৃহস্পতিবার ঘোষণা করেছে যে, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্র বিষয়ক উপদেষ্টা সারতাজ আজিজ নেতৃত্বে পাকিস্তানের একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদল – আফগান কর্মকর্তাদের  সঙ্গে আলোচনা এবং সম্ভাব্য দ্বিপাক্ষিক চুক্তি বাস্তবায়নে নিকট ভবিষ্যতে আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে সফর করবেন।

রাষ্ট্রপতির ডেপুটি মুখপাত্র দাওয়া খান মেনাপাল বলেন “প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি চীনের প্রেসিডেন্ট ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করার পর একটি নতুন অধ্যায়ের সূচনা করেছেন।  এছাড়াও চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী আফগানিস্তান ও পাকিস্তান সফর করেছেন এবং আমরা আশা করি যে এই আলোচনা আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের মধ্যে সহযোগিতার একটি নতুন অধ্যায় প্রতিষ্ঠায় সহায়তা করবে ”

প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, আব্দুল্লাহ আব্দুল্লাহর উপ-মুখপাত্র জাভেদ ফয়সাল বলেছেন  “পাকিস্তান থেকে প্রথম প্রতিনিধিদল আসবে যাদের সঙ্গে আলোচনার ফোকাস হবে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়ন এবং সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সহযোগিতার ক্ষেত্রেও এটি প্রযোজ্য হবে। শান্তি প্রক্রিয়ায় আমাদের যে প্রত্যাশা রয়েছে তা সামনে নিয়ে আসতে হবে, ”

এদিকে,  প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় আশা প্রকাশ করেছে যে, আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের মধ্যে সমস্যা চীনের সহযোগিতার মাধ্যমে সমাধান করা যেতে পারে। গত ১৮ মাস ধরে, আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্কের উত্থান ও পতন ঘটেছে, বিশেষ করে দুই দেশই কিছু নির্দিষ্ট বিষয়ে উত্তপ্ত কথাবার্তা বিনিময় করেছে যার মূল কেন্দ্রবিন্দু হল সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ। আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী পর্যায়ের ডায়লগ মেকানিজম গঠনে চীন রাজি হওয়ার মাত্র কয়েক দিন পর এই ঘোষণা আসে। অতীতে, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান বেশ কয়েকটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে – তবে উভয় দেশের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় সমস্যা সংশোধন করার ক্ষেত্রে এই সকল চুক্তি উপকারী বলে প্রমাণিত হয়নি। ফলস্বরূপ, রাজনৈতিক মন্তব্যকারীরা এখনও আশাবাদী হতে পারছে না এবং আসন্ন বৈঠক এবং নতুন চুক্তি সন্তোষজনক ফলাফল প্রদান করবে কিনা তাতে সন্দেহ পোষণ করছে।

রাজনৈতিক কর্মী ও বিশেষজ্ঞ  আজমল বালুচজাদ বলেন “এই দুইটি সংস্থার (পাকিস্তান-আফগানিস্তান গোয়েন্দা সংস্থা) মধ্যে তথ্য অংশীদারিত্বের চুক্তি সম্পর্কে আমি বলতে পারি যে পাকিস্তান  আফগান ন্যাশনাল ডাইরেক্টরেট অব সিকিউরিটি (এনডিএস) কেবলমাত্র অনিশ্চিত তথ্য সরবরাহের চেষ্টা করবে। অন্যদিকে, এনডিএস যখন পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থার (আইএসআই) কাছে তথ্য সরবরাহ করে তখন তা আইএসআইকে ডুরান্ড লাইনের উভয় পাশে আফগানিস্তানের সূত্রগুলি সনাক্ত করতে সহায়তা করবে এবং এটিকে সবসময় দৃঢ়ভাবে ধরে রাখতে পারবে”।

আফগানিস্তান ও পাকিস্তান দীর্ঘদিন ধরে তাদের সীমান্তের পাশে জঙ্গিদের কার্যক্রমে অপর পক্ষকে নিষ্ক্রিয়তার জন্য অভিযোগ করেছে।

 

print
SOURCEটলো নিউজ
শেয়ার করুন