আফগানিস্তান : দাবিনামা পেশ করেছে নতুন জোট

আফগানিস্তান : দাবিনামা পেশ করেছে নতুন জোট

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন

আফগান রাজনীতির মূলধারার তিনটি দল নিয়ে গঠিত একটি নতুন জোট (কোয়ালিশন ফর রেসকিউ অব আফগানিস্তান) শুক্রবার খসড়া প্রস্তাব ইস্যু করে সরকারকে তাদের দাবিগুলো মেনে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে। দল তিনটি হলো জমিয়াতে ইসলামী, ন্যাশনাল ইউনিটি অব পিপল অব আফগানিস্তান এবং ন্যাশনাল ইসলামিক মুভমেন্ট অব আফগানিস্তান। টোলো নিউজ তাদের দাবিগুলোর একটি কপি পাওয়ার ভিত্তিতে এ খবর প্রকাশ করেছে।

জোটের নেতৃবৃন্দ আইনের ঊর্ধ্বে ওঠে কাজ করার জন্য এবং রাজনৈতিক সব ক্ষমতা কুক্ষিগত করার জন্য প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনিকে অভিযুক্ত করেন।

খসড়ায় জোট জানায়, তারা চায় না বিদ্যমান ব্যবস্থা ধসে পড়ুক। তারা বরং চায় নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠানগুলোর পরিকল্পিত সংস্কার।

জোটের সদস্যরা অদূর ভবিষ্যতে এ নিয়ে একটি চুক্তি সই করবে বলে আশা করা হচ্ছে। চলতি সপ্তাহে তুরস্কে তারা জোট গঠন করতে সম্মত হয়।

আফগানিস্তানের জমিয়াতে ইসলামীর নেতৃত্বে রয়েছেন, ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী সালাহউদ্দিন রাব্বানি। আফগানিস্তানের প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট আবদুল রশিদ দোস্তামের নেতৃত্বে রয়েছে ন্যাশনাল ইসলামিক মুভমেন্ট অব আফগানিস্তান এবং সিইওর দ্বিতীয় সহকারী মোহাম্মদ মোহাকিকের নেতৃত্বে রয়েছে ন্যাশনাল ইউনিটি অব পিপল অব আফগানিস্তান। সালাহউদ্দিন রাব্বানি হলেন গনির অন্যতম সমালোচক।

এই জোট সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সর্বসম্মত অবস্থান গ্রহণের জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। তারা সন্ত্রাসপ্রতিরোধ অভিযানে যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্র এবং সেইসাথে রাশিয়ার মধ্যে সহযোগিতারও আহ্বান জানান।

তাদের বিবৃতিতে আইনের ঊর্ধ্বে কাজ করা এবং স্বজনপ্রীতির জন্য গনিকে অভিযুক্ত করেন। তারা সংবিধান, মন্ত্রীদের কর্তৃত্ব এবং নিরপেক্ষ প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রধানদের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শনের জন্য গনির প্রতি আহ্বান জানান।

এছাড়া জোটটি সিইও আবদুল্লাহ আবদুল্লাহ, প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং সিইওর দ্বিতীয় ডেপুটির কর্তৃত্বের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপনের জন্য প্রেসিডেন্টের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

নিরপেক্ষ প্রশাসনিক সংস্কার এবং সিভিল সার্ভিস কমিশনসহ নির্বাচন ব্যবস্থাপনার মধ্যে নিয়োগ পর্যালোচনার জন্যও গনির প্রতি আহ্বান জানিয়েছে জোটটি।

print
SOURCEটোলো নিউজ
শেয়ার করুন