রাখাইন ইস্যুতে সরকারের সমালোচনা করলেন সংসদ সদস্যরা

রাখাইন ইস্যুতে সরকারের সমালোচনা করলেন সংসদ সদস্যরা

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন

রাখাইন রাজ্যে আন্তর্জাতিক হস্তক্ষেপ প্রতিরোধ করার জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না দাবী করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সাবেক চীফ অফ স্টাফ হিউ হেয় উইন ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) নেতৃত্বাধীন সরকারের তীব্র সমালোচনা করেছে। বর্তমানে নিম্ন কক্ষের সংসদ সদস্য, সাবেক এই জেনারেল  এনএলডি নেতৃত্বাধীন সরকারের প্রতি আহ্বান জানান যাতে রাখাইন রাজ্যে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী কর্তৃক ব্যাপক মানবাধিকার লঙ্ঘনের তদন্তে নিযুক্ত জাতিসংঘের সত্যানুসন্ধানী মিশনের বিরুদ্ধে মিয়ানমার কতৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা নেয়।

তিনি বলেন, জাতিসংঘ এবং মিয়ানমারের মার্কিন দূতাবাসের বিভিন্ন বিবৃতিতে “রোহিঙ্গা” শব্দটি ব্যাবহারের বিরোধিতা করতে ব্যর্থ হয়েছে সরকার। মিয়ানমার সরকার রাখাইন রাজ্যের মুসলিম সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের দেশীয় জাতিগত গোষ্ঠীর মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করে না এবং তাদের “বাঙ্গালী” হিসাবে চিহ্নিত করে। তথাকথিত রোহিঙ্গা জঙ্গিরা গত বছরের ৯ অক্টোবর পুলিশের সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর হামলার পরে রাখাইন রাজ্যে বৌদ্ধ ও মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

২০১২-২০১৩ এর মুসলিম বিরোধী সহিংসতার পর থেকে প্রায় ১৪০,০০০ মানুষ বাস্তুহারা হয়ে পড়ে। এই হামলার জবাবে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী “ক্লিয়ারেন্স অপারেশন”  শুরু করলে ৭৫ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশে পালিয়ে যায়। নির্যাতন, বিচার বহির্ভুত হত্যাকাণ্ড এবং ব্যাপক যৌন সহিংসতার অভিযোগ  তদন্ত করার জন্য একটি সত্য-সন্ধানের মিশন পাঠানোর জন্য আন্তর্জাতিক মহল থেকে চাপ সৃষ্টি হয়। সাবেক জেনারেল বিরোধী ইউনিয়ন সলিডারিটি এবং ডেভেলপমেন্ট পার্টির (ইউএসডিপি) একজন কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এবং ২০১৩ সালের সাধারণ নির্বাচনে নেয়পিডাও এর জ্যায়থরি শহরের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য নিম্ন কক্ষে নির্বাচিত হন।

print
SOURCEদি ইরাবতী
শেয়ার করুন