ডেঙ্গু সংকট মোকাবেলায় শ্রীলংকা সেনা মোতায়েন

ডেঙ্গু সংকট মোকাবেলায় শ্রীলংকা সেনা মোতায়েন

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন
কলম্বোতে একটি রাস্তায় শ্রীলংকার লোকটি আবর্জনা ফেলার চেষ্টা করছে। ছবি: এএফপি

শ্রীলঙ্কা জুড়ে মারাত্মক আকারে ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়ার পরিপ্রেক্ষিতে এখন  মশার প্রজনন ক্ষেত্র ধ্বংস করতে মাঠে নেমেছে শ্রীলঙ্কার সেনাবাহিনী। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান এই বছরে ডেঙ্গুর কারণে দেশটিতে রেকর্ড ২১৫ জন মানুষ মারা গেছে। সেঁতসেঁতে মৌসুমি আবহাওয়া, সাম্প্রতিক বন্যা থেকে জমাটবদ্ধ পানি, পাশাপাশি রাজধানীতে আবর্জনার বিশাল বিশাল স্তুপের কারণে এই সময়ে মশার উপদ্রব বহুলাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে মশা বাহিত গ্রীষ্মমন্ডলীয় রোগ ডেঙ্গুর প্রকোপ সকলমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে।

এই বছরের প্রথম ৬ মাসে ৭১,০০০ এরও বেশী মানুষ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে যা গত বছরের ৫৫,০০০কে অতিক্রম করে নতুন রেকর্ড করেছে। সামরিক বাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়, পুলিশ ও স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের সহায়তায় সৈন্যরা ডেঙ্গু হট স্পট সনাক্ত করতে নিবিড় ক্যাম্পেইন শুরু করেছে যেখানে পর্যাপ্ত কীটনাশক স্প্রে করা হবে।

বিবৃতিতে বলা হয়, “২৫টি দল পৃথকভাবে কলম্বো এবং আশেপাশের এলাকায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় গিয়ে ডেঙ্গু প্রজননের স্থান এবং অন্যান্য ঝুঁকিপূর্ণ ক্ষেত্রগুলো ধ্বংস করার অভিযান চালাবে।”

হঠাৎ ডেঙ্গুর ব্যাপক বিস্তার শ্রীলংকার কর্তৃপক্ষকে অপ্রস্তত অবস্থায় ফেলে দিয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন যে এই বছরের প্রথম ছয় মাসে ২১৫ জন মারা গেছে, যেখানে ২০১৬ সালের পুরো সময়টিতে ৭৮ জন মারা যাওয়ার রিপোর্ট পাওয়া গেছে। ডেঙ্গু ছড়ানোর জন্য কর্তৃপক্ষ কলম্বোতে আবর্জনা অপসারণের সংকটকে দায়ী করেছে। এপ্রিল মাসে দেশের প্রধান আবর্জনাস্থলটি ধসের কারণে কয়েক ডজন বাড়িঘর ধ্বংস এবং ৩২ জনের প্রাণহানি হয়। এখন আবর্জনা ডাম্পিং এর জায়গার অভাবে এলাকা থেকে আবর্জনা সরানোর কাজটি অত্যন্ত ধীর গতিতে হচ্ছে। এতে করে রাস্তায় জমে থাকা স্তুপে মশা-প্রজনন অনেক বেড়ে যায়। এছাড়া গত মাসের বন্যাও ডেঙ্গুর বিস্তারে সাহায্য করছে বলে জানানো হয়েছে।

শেয়ার করুন