পাকিস্তানে পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের জন্য চীনের কাছে দরপত্র আহ্বান

পাকিস্তানে পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের জন্য চীনের কাছে দরপত্র আহ্বান

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন

পরমাণু প্রকৌশলের উপর ২৫ তম আন্তর্জাতিক সম্মেলনে ভাষণকালে চীনের রাষ্ট্রীয় শক্তি বিনিয়োগ সংস্থার চেয়ারম্যান ওয়াং বিংহুয়া জানিয়েছেন, পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে চীনের কাছে দরপত্র আহ্বান করেছে পাকিস্তান। আভ্যন্তরীণ গবেষণালব্ধ পারমাণবিক প্রযুক্তি বিক্রয়ের জন্য চীন অনেকদিন ধরেই প্রচেষ্টা চালাচ্ছে এবং বিশ্ব বাজারে তার শেয়ার সম্প্রসারিত করে মুনাফা বৃদ্ধি করতে চাইছে। ওয়াং বলেন, “আমরা ২০০৭ সালে মার্কিন-ভিত্তিক ওয়েস্টিংহাউজ থেকে প্রযুক্তিটি কিনেছি  এবং এর পরে প্রায় ২০০টি স্থানীয় গবেষণা প্রতিষ্ঠান ও কোম্পানি আরও গবেষণা আর উন্নয়নের মাধ্যমে পারমাণবিক প্রযুক্তি স্থানীয়করণ করতে সাহায্য করেছে,”

বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত কিছু পারমাণবিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে চীন এইবছরের শেষ প্রান্তিকে ঝেইজাং ও শানডং প্রদেশে দুটি পারমাণবিক চুল্লী অপারেশনাল করার পরিকল্পনা করছে। ঝেইজাং এর সানমেন স্টেশন এবং শানডং এর হাইয়াং স্টেশন প্রতিটি ১০০০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন হবে যা চীনকে কয়লা এবং গ্যাসের উপর তার নির্ভরতা কমাতে সাহায্য করবে। সাংহাই পারমাণবিক প্রকৌশল গবেষণা ও ডিজাইন ইনস্টিটিউটের সভাপতি জং মিংগুগি একথা বলেন। সানমেন চুল্লি গত শনিবারে কমিশন করা হয়েছে এবং রাষ্ট্রীয় গ্রিডের সাথে সংযুক্তির জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমোদন পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছে। ওয়াংয়ের মতে,  চতুর্থ প্রান্তিকের মধ্যে এই প্ল্যান্টটি চালানো হবে,  তবে এখনও বেশ কিছু অনিশ্চয়তার বিষয় পর্যবেক্সণৈ রাখা হয়েছে।

বিস্ফোরণ এড়াতে স্বয়ংক্রিয় কুলিং সিস্টেম ‘অ্যাডভান্সড প্যাসিভ সিস্টেম’ এর সাথে মিল রেখে রিঅ্যাক্টরগুলির নামকরণ করা হয় ‘এ পি ১০০০’। রিএ্যাক্টরগুলির মেয়াদ ৬০ বছর তবে তার পরেও আরও ২০-৩০ বছরও কোন সমস্যা ছাড়াই চলতে পারে বলে জানান ঝেং।

print
SOURCEদি নেশন
শেয়ার করুন