ভুটানঃ ডব্লিউটিওতে যোগদানে স্বাস্থ্য প্রযুক্তি ও ওষুধের সুবিধা বাধাগ্রস্ত হতে পারে

ভুটানঃ ডব্লিউটিওতে যোগদানে স্বাস্থ্য প্রযুক্তি ও ওষুধের সুবিধা বাধাগ্রস্ত হতে পারে

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন

ভুটান ২০০৪ সাল থেকেই বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার (ডব্লিউটিও) সদস্য হওয়ার চেষ্টা করে এলেও ভুটান মেডিক্যাল অ্যান্ড হেলথ কাউন্সিলের নিবন্ধক সোনম দরজি বলেছেন, সংস্থার সদস্য হওয়াটা দেশের জনসাধারণ ও স্বাস্থ্যব্যবস্থার জন্য কল্যাণকর হবে না।

মঙ্গলবার ভুটানের বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থায় যোগদানবিষয়ক একটি প্যানেল আলোচনায় এ মন্তব্য করেন। এতে ভুটানে ওষুধসহ স্বাস্থ্য প্রযুক্তি নিয়ে বিশেষভাবে আলোচনা হয়। অংশগ্রহণকারী ৪০ জনের মধ্যে মাত্র পাঁচজন ছিলেন এমপি। তবে প্রায় ২০ জন এমপি এতে অংশগ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন।

সোনম দরজি বলেন, ডব্লিউটিও-এ যোগদানের বিষয়টি নিয়ে আরো আলোচনার দরকার রয়েছে। কারণ, এতে যোগ দিলে বাণিজ্য ও পরিষেবা অবাধ সুযোগ পাওয়া যাবে। কিন্তু মেধাসত্বও বাধ্যতামূলকভাবে কার্যকর করতে হবে। এর ফলে ওষুধের দাম বেড়ে যাবে। ফলে আমাদের বুঝে-শুনে এগুনো উচিত।

তবে বাণিজ্য দফতরের সিনিয়র কর্মকর্তা তশেওয়াং দরজি ভিন্ন কথা বলেন। তিনি বলেন, ডব্লিউটিওতে যোগ দিলে ভুটান বিশ্ব সম্প্রদায়ের অংশে পরিণত হবে।

তিনি বলেন, স্বল্প উন্নত দেশ হিসেবে ডব্লিউটিও ভুটানের কর্মকর্তাদের সামর্থ্য বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে। তাছাড়া ডব্লিউটিও’র সদস্য না হয়েই ভুটান এখন কমবেশি সংস্থাটির নিয়ম মেনে চলছে।

তিনি বলেন, ডব্লিউটিওতে প্রবেশ করলে স্বাস্থ্য পরিচর্যা খাতে কী প্রভাব পড়বে তা বোঝার সময় এখনো হয়নি।

ভারতভিত্তিক আইনি পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের অপর আলোচক কাজল ভরদ্বাজ বলেন, জাতীয় ইস্যুতে এ ধরনের আলোচনা খুবই ভালো বিষয়।

print
SOURCEকুয়েনসেল
শেয়ার করুন