ইয়াঙ্গুনের মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য ‘অপমানজনক’ বলে অভিযোগ করেছে সেনাপ্রধানের অফিস

ইয়াঙ্গুনের মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য ‘অপমানজনক’ বলে অভিযোগ করেছে সেনাপ্রধানের অফিস

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন
সিনিয়র জেনারেল মিন আঙ হলাইন

ইয়াঙ্গুনের মুখ্যমন্ত্রী ফয়ো মিন থেইন এর সাম্প্রতিক বক্তব্য মায়ানমারের সেনাবাহিনীর জন্য অপমানজনক এবং এটি সেনাবাহিনী ও সেনাপ্রধানের ইমেজের জন্য ক্ষতিকর – সেনাপ্রধানের কার্যালয় থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে একথা বলা হয়েছে। ১২ জুলাইয়ের এই বিবৃতিতে দাবি করা হয়, এই ধরনের বক্তব্য কমান্ডার ইন চিফ এর উপর কলঙ্ক তৈরির জন্য দেয়া হয়েছে এবং এমন এক সময়ে এটি দেয়া হয়েছে যখন সেনাবাহিনীর প্রধান আন্তর্জাতিক শুভেচ্ছা সফরে বিদেশ আছেন। গত ৯ জুলাই ফয়ো মিন থেইনের কমান্ডার ইন চিফের সাথে সম্পর্কিত এই মন্তব্যটি জাতীয় পুনর্মিলন প্রক্রিয়ায় এবং সরকার ও সেনাবাহিনীর মধ্যে সম্পর্কের ক্ষতি সাধন করতে পারে।

এছাড়া সেনাপ্রধানের অফিস থেকে ইয়াঙ্গুনের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ‘প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের’ জন্য সরকারের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া এক খবরের উদ্ধৃতি দিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ইয়াঙ্গুনে রোববার এক কর্মশালায় বক্তৃতা করার সময় মুখ্যমন্ত্রী বলেছেনে, ‘গণতান্ত্রিক আমলে বেসামরিক-সামরিক সম্পর্ক বলে কিছু নেই এবং ‘সামরিক বাহিনীর কমান্ডার-ইন-চিফের অবস্থান প্রটোকল অনুযায়ী মহাপরিচালকের মর্যাদার।’

অফিস থেকে বলা হয়, কমান্ডার ইন চীফ ২০০৮ সালের সংবিধান অনুযায়ী ফয়ো মিন থেইনের মতোই রাষ্ট্রের প্রতি দায়িত্ব পালন করছেন। গত বছরের এপ্রিলে ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্র্যাসির (এনডিএল) সরকারের প্রকাশিত রাষ্ট্রীয় প্রটোকলে বলা হয়, সামরিক বাহিনীর প্রধান সিনিয়র জেনারেল মিন আঙ হলাইনের মর্যাদা রাষ্ট্রীয় পদক্রমে অষ্টম। তার স্থানটি দেশের প্রধান বিচারপতির পরই। আর মুখ্যমন্ত্রীদের মর্যাদা ১৯-এ। রাষ্ট্রীয় প্রটোকলে প্রেসিডেন্ট উ হতিন কিয়ু থেকে শুরু করে প্রতিরক্ষামন্ত্রী পর্যন্ত ৩৬ ব্যক্তির তালিকা দেয়া হয়।

 

SOURCEমিজিমা
শেয়ার করুন