উত্তরপ্রদেশে ট্রেনে রড দিয়ে মুসলিম পরিবারের উপর হামলা, সাম্প্রদায়িক অপমান

উত্তরপ্রদেশে ট্রেনে রড দিয়ে মুসলিম পরিবারের উপর হামলা, সাম্প্রদায়িক অপমান

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন

উত্তর প্রদেশের ফারুকাবাদ জেলায় চলন্ত ট্রেনে ১০ জনের এক মুসলিম পরিবারকে নির্দয়ভাবে মারপিট করেছে একদল ‌যুবক। পুরুষ, নারী ও এমনকি প্রতিবন্ধী শিশুও এর শিকার হয়ে এখন হাসপাতালে রয়েছে। এক পুলিশ কর্মকর্তার ভাষ্যমতে, পরিবারের 8 জন সদস্য আহত হয় – এর মধ্যে কয়েকজন বেশ গুরুতরভাবে আহত। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনকে ধরা হয়েছে কিন্তু এখনো পর্যন্ত কোন গ্রেফতার দেখানো হয়নি।

বুধবার একটি বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে শিকোহাবাদ-কাসগঞ্জ প্যাসেঞ্জার ট্রেনে ফিরছিল ওই পরিবারটি। ফারুকাবাদ থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে চলন্ত ট্রেনে ওই পরিবারটির ওপরে চড়াও হয় ৩০-৩৫ জনের একটি দল। প্রথমে ওই কামরায় জানালায় প্রবল পাথরবৃষ্টি করে হামলাকারীরা। পরে তারা ট্রেনের ইমারজেন্সি জানালা দিয়ে ভেতরে ঢুকে ব্যাপক মারধর করে গোটা পরিবারটিকে। রেহাই পায়নি এক প্রতিবন্ধী ‌যুবকও।

কী থেকে ওরকম একটি ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটল তা নিয়ে ভিন্ন মত শোনা ‌যাচ্ছে। একটি সূত্র বলছে ওই পরিবারের সঙ্গে থাকা প্রতিবন্ধী ‌যুবকটির হাত থেকে একটি মোবাইল ছিনিয়ে নেয় কয়েকজন ‌যুবক। তার প্রতিবাদ করাতেই হামলা। হামলাকারী ‌যুবকরা পাশের কামরা থেকে সঙ্গীদের ডেকে এনে হামলা চালায় অন্যদিকে অন্য একটি সূত্র বলছে পারিবারটির মহিলা সদস্যদের শ্লীলতাহানির চেষ্টা করা হয়। এর প্রতিবাদ করলে ঐ যুবক প্রতিশোধ নিতে তার গ্রামের বাসিন্দাদের আসতে বলে যারা পরের স্টেশন থেকে ট্রেনে উঠে।

জানা যায় যে, আক্রমণের ভয়ে পরিবারটি ট্রেনে তাদের কম্পারটমেন্ট বন্ধ করে দেয় কিন্তু এক ডজন মানুষ জোরপূর্বক প্রবেশ করতে সক্ষম হয়। পরিবারের মহিলারা কাদতে কাদতে বলে “তারা আমাদের গহনা, মোবাইল ছিনিয়ে নেয়, জামাকাপড় ছিঁড়ে ফেলে।”

ঘটনায় হাত ভেঙেছে বছর পঞ্চাশের মহম্মদ সাকিরের। তার মাথাতেও জোরালো আঘাত লেগেছে। সংবাদ মাধ্যমকে সাকির জানিয়েছেন, ওরা আমাদের ওপরে রড নিয়ে চড়াও হয়, মহিলাদের শ্লীলতাহানি করে। বাদ দেয়নি আমাদের প্রতিবন্ধী সন্তানকেও। হামলার সময়ে ওরা বলছিল, ওরা মুসলিম। এদের মার। সাকিরের ছেলে আরসান জানিয়েছেন, ওরা আমার মা ও বোনের জামাকাপড় ছিঁড়ে দিয়েছে। সোনার গহনা ছিনিয়ে নিয়ে গেছে। পুলিশের ইমারজেন্সি নম্বরে ডায়াল করেও কোনও লাভ হয়নি। ট্রেন থামতেই ওরা পালিয়ে ‌যায়।

ঘটনাটি হরিয়ানার বল্লভগড়ে চলন্ত ট্রেনে এক মুসলিম কিশোরকে পিটিয়ে মারার সাথে অনেকাংশেই মিলে যায়। আসন নিয়ে কথা কাটাকাটির পর  ১৬ বছর বয়সী জুনায়েদকে “গরুর মাংস খায়” বলে ছুরি নিয়ে আঘাত শুরু করে একদল লোক।

print
SOURCEএনডিটিভি  
শেয়ার করুন