বিশ্বে রাবার রপ্তানির ১.৬ শতাংশ হয় মিয়ানমার থেকে, বেশীরভাগই যায় চীনে

বিশ্বে রাবার রপ্তানির ১.৬ শতাংশ হয় মিয়ানমার থেকে, বেশীরভাগই যায় চীনে

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন
ছবিঃ এএনএন/ ইলেভেন মিডিয়া গ্রুপ

বিশ্বব্যাপী ৯০ টিরও বেশি রাবার রপ্তানিকারক দেশ রয়েছে যার মধ্যে শীর্ষে আছে এশিয়ান দেশগুলো। মোট রাবার রপ্তানির ৮০% অবদান হল এশিয়ার এবং ৮.৫% অবদান আফ্রিকার দেশগুলোর। এক্ষেত্রে দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষ দেশ মিয়ানমার। চলতি অর্থবছরের ১ এপ্রিল থেকে ২৮ শে জুলাই এর মধ্যে মিয়ানমারে সমুদ্র পথে ১০,০০০ টন এবং স্থল-সীমান্ত বাণিজ্যের মাধ্যমে ৩০ হাজার টনেরও বেশি রাবার রপ্তানি করে। প্রায় ৭৫ শতাংশ রবার রপ্তানি হয় চীন-মিয়ানমার সীমান্তের ম্যুইস ১০৫তম সীমান্ত বাণিজ্য কেন্দ্র এবং চিনশেওহাও সীমান্ত বাণিজ্য কেন্দ্র থেকে।

দেশটির বাণিজ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এই বছর মিয়ানমার ছয়টি দেশে রাবার রপ্তানি করছে, এবং এর অধিকাংশই চীনে, মালয়েশিয়ায় এবং জাপানে রপ্তানি হচ্ছে। জুলাই ২২ থেকে ২৮ তারিখের মধ্যে মিয়ানমার স্থলসীমান্ত দিয়ে ১০৫৫ টন রাবার রপ্তানি করেছে যার মূল্য ছিল ১.৩৫২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

১০৮ টন আর.এস.এস-৩ রাবার এবং ৯ টন আর.এস.এস-৫ রাবার বিক্রি হয় ম্যুইস সীমান্ত বাণিজ্য কেন্দ্র থেকে, ৩৫৮ টন আর.এস.এস-৩ রাবার এবং ৯৯৩ টন এম.এস.আর-২০ রাবার বিক্রি হয় চিনশেওহাও সীমান্ত বাণিজ্য কেন্দ্র থেকে এবং ১০৬ টন লেটেক্স রাবার বিক্রি হয় তাচিলেক সীমান্ত বাণিজ্য কেন্দ্র দিয়ে।

এই সময়ে মিয়ানমার সমুদ্র পথে ০.৬৫৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের ৪৭৯টন রাবার রপ্তানি করে। এর মধ্যে ৮১ টন টিএসআর-২০ চীনে, ২৪৭ টন টিএসআর-২০ রাবার দক্ষিণ কোরিয়াতে এবং ১৫১টন এমএসআর-২০ রাবার জাপানে বিক্রি করা হয়।

print