কাঠমন্ডু সম্মেলনে বিমসটেক মুক্ত বাণিজ্য অঞ্চল চুক্তির প্রাথমিক পর্যায় চূড়ান্ত

কাঠমন্ডু সম্মেলনে বিমসটেক মুক্ত বাণিজ্য অঞ্চল চুক্তির প্রাথমিক পর্যায় চূড়ান্ত

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন

বৃহস্পতিবার কাঠমান্ডুতে বঙ্গোপসাগরের বঙ্গোপসাগর ইনিশিয়েটিভ ফর মাল্টি-সেক্রেটারি টেকনিক্যাল অ্যান্ড ইকোনমিক কো-অপারেশন (বিমসটেক) ​​-এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ১৮তম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এখানে আঞ্চলিক সহযোগিতায় বাণিজ্য, শক্তি ও প্রযুক্তির গুরুত্ব স্বীকার করে বিমসটেক মুক্ত বাণিজ্য অঞ্চল চুক্তির প্রাথমিক পর্যায় চূড়ান্তকরণের উপর জোর দেওয়া হয়। এসময় গ্রিড সংযোগ স্থাপন এবং প্রযুক্তি স্থানান্তর সুবিধা প্রতিষ্ঠার জন্য সমঝোতা স্মারক চূড়ান্ত করার উপরেও গুরুত্বআরোপ করা হয়। সব সদস্য রাষ্ট্রের প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে  বাণিজ্য, বিনিয়োগ, সংযোগ, জ্বালানি ও পর্যটনের মতো মূল বিষয়গুলোতে দ্রুত বিস্তারের উপর  জোর দেওয়ার কথা বলা হয়। সংশ্লিষ্ট দেশগুলিতে প্রতিষ্ঠিত বিমসটেক কেন্দ্রগুলির অপারেশন শুরু করার জন্য এটি সদস্য রাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানায়।

এতে নেপালের পররাষ্ট্র সচিব শঙ্কর দাস বীরগি বলেন, ফোরাম সদস্য দেশগুলোর লক্ষ্য হবে সব ক্ষেত্রেই কার্যক্রম না চালিয়ে কয়েকটি নির্দিষ্ট বিষয়ে মনোযোগ দেওয়া যাতে করে এই বিশেষ সেক্টরগুলিতে একটি বাস্তব ফলাফল পাওয়া যায়। তিনি বলেন “সদস্য রাষ্ট্রগুলি কার্যক্রমের আওতা প্রশস্ত না করে গভীরতর করার ধারণাকে এগিয়ে নিতে সম্মত হয়েছে।”

বৈঠককালে নেপাল পাহাড়ি অর্থনীতি নিয়ে একটি খসড়া ধারণা দেওয়ার প্রস্তাব করেছে এবং ধারণাপত্র চূড়ান্ত করার জন্য একটি বিশেষজ্ঞ স্তরের সভা আয়োজন করার কথা বলেছে। বৈরাগী জানিয়েছেন, ধারণাটি বিমসটেক সদস্য রাষ্ট্রগুলির মধ্যে গঠিত সমুদ্রভিত্তইক ব্লু অর্থনীতির অনুরূপ।

বৈরাগী বলেন, “আমাদের প্রস্তাবটি নেপাল, ভারত ও ভুটানের মতো দেশের জন্য, যেখানে পাহাড়ী অর্থনীতির উল্লেখযোগ্য সম্ভাবনা রয়েছে।”

print