পাকিস্তান ও ইটালির মধ্যে প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়ছে

পাকিস্তান ও ইটালির মধ্যে প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়ছে

এসএএম রিপোর্ট,
শেয়ার করুন

পাকিস্তানের জেসিএস কমিটির চেয়ারম্যান জেনারেল জুবায়ের মাহমুদ হায়াত ইটালিতে সরকারি সফরকালে ইটালিয়ান ডিফেন্স জেনারেল স্টাফ কমিটির চেয়ারম্যান জেনারেল ক্লাউদিও গ্রাজিয়ানের সঙ্গে তার দফতরে সাক্ষাত করেছেন।

সাক্ষাতকালে প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা সহযোগিতাসহ দ্বিপক্ষীয় স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। দুই দেশের মধ্যে চলমান দ্বিপক্ষীয় আলোচনার ধারাবাহিকতায় এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

গত কয়েক বছর ধরে পাকিস্তান ও ইটালি পারস্পরের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করে আসছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে সন্ত্রাস দমন, বিদ্রোহ দমন, প্রতিরক্ষা উৎপাদন এবং আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তা।

বিষয়গুলো মাথায় রেখে পাকিস্তান-ইটালি প্রতিরক্ষা সম্পর্ক ক্রমেই জোরদার হচ্ছে। গঠনমূলক আলোচনা এবং সামরিক ও কৌশলগত দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক সুসংহত করা ও সামনে এগিয়ে নিত দু’দেশের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা সফর বিনিময় করছেন।

গত বছর অক্টোবরে পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডিতে ‘পাকিস্তান-ইটালি জয়েন্ট কমিটি অন ডিফেন্স সিস্টেমস (জেসিডিএস)-এর ১১তম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এরপর ইটালির প্রতিরক্ষামন্ত্রী রবার্তো পিনোত্তির আমন্ত্রণে পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খুররম দস্তগির খান তিন দিনের সফরে ইটালি যান। পাকিস্তান-ইটালি প্রতিরক্ষা ও কৌশলগত সহযোগিতা জোরদার করতে তিনি তার ইটালিয়ান প্রতিপক্ষের সঙ্গে ওয়ান-টু-ওয়ান এবং প্রতিনিধি পর্যায়ের বৈঠকে অংশ নেন।

ইটালির প্রতিরক্ষা ও পররাষ্ট্র বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সঙ্গেও সাক্ষাত করেন দস্তগির। ২০১৬ সালে পিনোত্তি পাকিস্তান সফরে আসেন এবং তার পকিস্তানী প্রতিপক্ষ ও অন্যান্য সামরিক ও বেসামরিক নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করেন।

এর আগে ২০১৩ সালে দুই দেশ দ্বিপাক্ষিক ও প্রতিরক্ষা সম্পর্ক জোরদারের লক্ষ্যে স্ট্রাটেজিক এনগেজমেন্ট প্লান (এসইপি) চুক্তি করে।

পাকিস্তানে প্রতিরক্ষা সামগ্রি সরবরাহকারী পশ্চিমা দেশগুলোর মধ্যে ইটালি অন্যতম। ১৯৯০’র দশকে পাকিস্তান বিমান বাহিনীর এফ-৭ ও মিরেজ জঙ্গি বিমানের জন্য রাডার সরবরাহ করেছে ফিনমেচ্চানিচা (এখন লিওনার্দো নামে পরিচিত)। ২০০৭ সালে ইটালির কাছ থেকে পাকিস্তান প্রায় ৪৭৫ মিলিয়ন ডলারে মাঝারি পাল্লার স্যাম ক্ষেপনাস্ত্র এমবিডিএ স্পাডা ২০০০ প্লাস কিনেছে।

২০১৬ সালের নভেম্বরে করাচিতে অনুষ্ঠিত ইন্টারন্যাশনাল ডিফেন্স এক্সিবিশন এন্ড সেমিনারে পাকিস্তান অর্ডিন্যান্স ফ্যাক্টরি ও ইটালিয়ান প্রতিরক্ষা কোম্পানিগুলোর মধ্যে বেশ কিছু চুক্তি সই হয়।

২০১৬ সালের মে মাসে ফ্লিট রিনিউয়াল কর্মসূচির আওতায় পাকিস্তান চারটি লিওনার্দো এডব্লিউ১৩৯ হেলিকপ্টার কেনে। এর বাইরেও পাকিস্তান সরকার অজ্ঞাত সংখ্যক এডব্লিউ১৩৯ ইন্টারমিডিয়েট টুইন-ইঞ্জিন হেলিকপ্টারের অর্ডার দিয়েছে বলে জানা গেছে। আগামী বছর এসব হেলিকপ্টার সরবরাহ করা হবে।

প্রতিরক্ষা খাতের বাইরে দুই দেশের শিক্ষা ও উন্নয়ন  খাতের মধ্যে সহযোগিতা কর্মসূচি রয়েছে।

print
শেয়ার করুন