দেশের স্বার্থ সবার আগে, ‘বন্ধু’ ইমরানের শপথ মঞ্চে থাকছেন না গাভাসকর

দেশের স্বার্থ সবার আগে, ‘বন্ধু’ ইমরানের শপথ মঞ্চে থাকছেন না গাভাসকর

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন

জল্পনার অবসান৷ পাক প্রধানমন্ত্রী হিসাবে ইমরান খানের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যাচ্ছেন না৷ স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিলেন ভারতীয় কিংবদন্তী সুনীল গাভাসকর৷ না যাওয়ার কারণ হিসাবে তিনি উল্লেখ করেন, ব্যক্তিগত সমস্যা ও ব্যস্ততাকে৷ যদিও তাঁর এই যুক্তি মানতে নারাজ আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশ৷ বরং তারা বলছেন, দেশের স্বার্থকে মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন গাভাসকর৷ দেশকে গুরুত্ব দিয়ে, ‘পরম বন্ধু’ ইমরানের বিশেষ দিনে উপস্থিত থাকা থেকে নিজেকে বিরত রাখছেন তিনি৷

পাক নির্বাচনে জয়ী ঘোষণা হওয়ার পরেই জল্পনা শুরু হয়, ভাবি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের শপথ গ্রহণের দিনক্ষণ নিয়ে৷ প্রথমে জল্পনা ছড়ায়, ১১ আগস্ট শপথ নেবেন ইমরান খান৷ তারপর জানা যায়, ১৪ আগস্ট, পাক স্বাধীনতা দিবসের দিন শপথ নেবেন তিনি৷ কেবল শপথগ্রহণের দিনক্ষণই নয়, অতিথি তালিকায় কোন কোন ভারতীয় বন্ধুকে আমন্ত্রণ জানাবেন প্রাক্তন এই পাক ক্রিকেট অধিনায়ক, তাই নিয়েও দানা বাঁধে কৌতূহল৷ অবশেষে সমস্ত জল্পনার অবসান হয় শনিবার৷ জানা যায়, আগামী ১৮ আগস্ট শপথ গ্রহণ করবেন পাকিস্তান তেহরিক-ই-পাকিস্তান (পিটিআই) প্রধান এবং আমন্ত্রিতদের তালিকায় নাম রয়েছে ভারতীয় ক্রিকেটের তিন তারকার, সুনীল গাভাসকর, অনিল কুম্বলে ও নভজ্যোত সিং সিধু৷ তবে এরপরেই শুরু হয় বিতর্ক৷ স্পষ্ট ভাষায় আমন্ত্রণ গ্রহণে অস্বীকার করেন ‘লিটল মাস্টার’ সুনীল গাভাসকর৷ মাস্টার স্ট্রোক দিয়ে জানিয়ে দেন, ইংল্যান্ড-ভারত টেস্ট ম্যাচ নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন তনি৷ ফলে ইমরান খানের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যেতে পারবেন না৷ পাশাপাশি জানা গিয়েছে, শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পাঞ্জাবের মন্ত্রী নভজ্যোত সিং সিধু৷ ইতিমধ্যে, এই সংক্রান্ত অনুমতি চেয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের দ্বারস্থও হয়েছেন তিনি৷

print