দেউবার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ: শীর্ষ অগ্রাধিকার সংবিধান কার্যকর করা

দেউবার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ: শীর্ষ অগ্রাধিকার সংবিধান কার্যকর করা

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন

নেপালের নব নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী শেখ বাহাদুর দেউবা বুধবার তার দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। দেউবার দায়িত্ব গ্রহণের পর বৃহস্পতিবার কাঠমান্ডুর সিংহ দরবারে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধানমন্ত্রী এবং মন্ত্রী কাউন্সিল (ওপিএমসি) এর দায়িত্ব গ্রহণের পর  ওপিসিএমএমের মধ্যে সচিবালয় প্রতিষ্ঠার বিষয়ে অনুমোদন দেন।

সংবিধানের ২৩৪ অনুচ্ছেদ অনুসারে প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে আন্তঃ-রাষ্ট্রীয় কাউন্সিল গঠন করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ড. সোমালাল সুবেদী জানান, নতুন প্রধানমন্ত্রী সব সরকারি প্রতিষ্ঠানের জন্য উত্তম আচরণ নীতিমালার অনুমোদনপত্রে স্বাক্ষর করেন।

নবনির্বাচিত অর্থমন্ত্রী গণেন্দ্র বাহাদুর কারকি জানান, প্রথম মন্ত্রিসভা বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুসারে ২৮ শে জুলাইয়ের নির্ধারিত তারিখের মধ্যে স্থানীয় পর্যায়ের দ্বিতীয় দফার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং সংবিধান বাস্তবায়ন ও সংবিধান অনুযায়ী অন্তবর্তীকালীন ব্যবস্থাপনা করা হবে। একইভাবে সংবিধানের নির্ধারিত সময় ২১ শে জানুয়ারি, ২০১৮ সালের মধ্যে প্রদেশ ও কেন্দ্রের নির্বাচন অনুষ্ঠিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রীসভা।

তিনি জানান, সরকার দুর্যোগ উত্তর পুনর্নির্মাণসহ বিভিন্ন কর্মকাণ্ড, জনগণ ভিত্তিক সেবা দানকে দক্ষ ও মসৃণ করা, শান্তি ও নিরাপত্তা সুসংহত করা ও সরবরাহ ব্যবস্থাপনাকে শক্তিশালী করা এবং শান্তি প্রক্রিয়ার অবশিষ্ট কাজ সম্পন্ন করার উপর গুরুত্বারোপ করছে।

বৈঠকে অর্থমন্ত্রী কারাকিকে সরকারের মুখপাত্র হিসেবে মনোনীত করা হয়।

এর আগে বুধবার বিকেলে, কাঠমান্ডুর শীতল আবাসে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে দেউবাকে প্রধানমন্ত্রীর শপথ বাক্য পাঠ করান প্রেসিডেন্ট বিদ্যা দেবী ভান্ডারি।

নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণের পর দেউবা সাত জন মন্ত্রীর শপথ বাক্য পাঠ করান। তাদের মধ্যে নেপালি কংগ্রেসের তিনজন, সিপিএন (মাওবাদী কেন্দ্র) থেকে তিনজন এবং নেপালের লোকতান্ত্রিক ফোরাম থেকে একজন রয়েছেন।

নেপালি কংগ্রেসের গোপাল মান শ্রেষ্ঠাকে উপ-প্রধানমন্ত্রী এবং শিক্ষা মন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে, জ্ঞানেন্দ্র বাহাদুর কারকিকে অর্থমন্ত্রী এবং ফারমুল্লাহ মনসুরকে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রী হিসাবে নিয়োগ করা হয়েছে।

এদিকে সিপিএন (মাওবাদী কেন্দ্র) -এর কৃষ্ণা বাহাদুর মহারাকে উপ প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রী নিযুক্ত করা হয়েছে।

একইভাবে সিপিএন (এমসি) নেতা জনাদন শর্মাকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্বে নিযুক্ত করা হয়েছে এবং প্রফুল শাহকে দফতরবিহীন মন্ত্রী নিয়োগ করা হয়েছে।

print