নেপালের প্রধান দলগুলোর সাথে আরজেপি-এন আলোচনা ব্যর্থ

নেপালের প্রধান দলগুলোর সাথে আরজেপি-এন আলোচনা ব্যর্থ

এসএএম স্টাফ,
শেয়ার করুন

নেপালের প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোর সাথে আন্দোলনরত রাষ্ট্রীয় জনতা দল-নেপালের (আরজেপি-এন) মধ্যে বুধবারের সভাটি কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হয়েছে।

সিংহ দরবারে অনুষ্ঠিত বৈঠকে আরজেপি-এন নেতারা বলেন, সরকার তাদের দাবিগুলো না মানা পর্যন্ত ২৮ জুলাই অনুষ্ঠেয় দ্বিতীয় পর্যায়ের স্থানীয় নির্বাচনে তারা অংশ নেবেন না।

আরজেপি-এন নেতারা সংশোধিত সংবিধান সংশোধন বিল পাস, আন্দোলনরত দলগুলোর ক্যাডারদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার এবং জনসংখ্যার ভিত্তিতে স্থানীয় পর্যায়ে সংস্থাগুলোতে মাদেশিদের সংখ্যা বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন সরকারের প্রতি।

সভা থেকে বের হয়ে প্রধান বিরোধী দল সিপিএন-ইউএমএল ডেপুটি পার্লামেন্টারি পার্টি নেতা সুবাস চন্দ্র নেবাঙ বলেন, সভায় উপস্থিত নেতারা আরজেপি-এন নেতাদের বলেছেন, বর্তমানে সংশোধিত সংবিধান সংশোধিত বিল এবং স্থানীয় পর্যায়ে সংস্থাগুলোতে মাদেশিদের আসন বাড়ানোর সম্ভব নয়।

তারা প্রয়োগগত ইস্যুগুলো বাছাই করার মাধ্যমে নির্বাচনে অংশ নিতে আরজেপি-এন নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান। কিন্তু তারা এই আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেছেন বলে তিনি জানান।

এদিকে ইউএমএল নেতারা বলেছেন, কোনোভাবেই পরবর্তী পর্যায়ের নির্বাচন পেছানো হবে না।

পরবর্তী সভার তারিখ নির্ধারিত হয়েছে ১৫ জুন।

ওই সভার আগে প্রধানমন্ত্রী শের বাহাদুর দেউবার নির্বাচন কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করবেন বলে জানা গেছে।

ইতোমধ্যে খবর রটেছে, আরজেপি-এন রাজি থাকলে প্রধানমন্ত্রী দেউবা ওই নির্বাচন কয়েক দিন পিছিয়ে দিতে পারেন। প্রধান বিরোধী দল সিপিএন-ইউএমএল এই আইডিয়ার বিরোধী।

প্রধানমন্ত্রী শের বাহাদুর দেউবা, সিপিএন-ইউএমএল চেয়ারম্যান কে পি অলি, সিপিএন (মাওবাদী সেন্টার) চেয়ারম্যান পুষ্প কমল দহল (প্রচন্ড) এবং আরজেপি-এন নেতারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

print